পূজোর আনন্দ সত্যিই কী জীবন থেকে মুছে যাচ্ছে ?- পুষ্পেন দে

– পুষ্পেন দে

“বিগত কয়েক বছর ধরে পূজোর আনন্দ একটু ম্লান!” এই কথা একবার হলেও আপনার মুখে শোনা গেছে। এই বিষয়েই, কিছু কথা আমার মনে হয়েছে, আর তাই নিয়েই আজকের এই লেখা।

আমাদের সকল আবেগই আপেক্ষিক। মানে আজ আপনি কোনো একটি বিষয় নিয়ে খুবই উৎফুল্ল/আনন্দিত, সেই একই বিষয় আপনার সাথে কাল আবার ঘটলে আপনি আর ততটা আনন্দিত হবেন না এবং দিনে দিনে তা ক্রমশ হ্রাসমান। আনন্দ তখনই বাড়ে যখন সেটা আগের আনন্দের বিষয়/ঘটনাকে ছাপিয়ে যায়। বাকি আবেগ গুলির ক্ষেত্রেও এইকথা সমান ভাবে প্রযোজ্য।

এইবার আসি পূজোর ব্যাপারে, পূজোর আনন্দ বলতে আমরা কী বুঝি ? একটু ভালো সাজ পোশাক, খাওয়া দাওয়া, বাইরে ঘুরতে যাওয়া। আমরা সবাই অপেক্ষা করতাম, পূজো এলে নতুন জামা পরে বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে যাবো। বছরের বাকি দিনগুলোতে তো এই স্বাধীনতা পাওয়া যেত না। তারসাথে পঞ্চ ব্যঞ্জন খাওয়া দাওয়া।

কিন্তু আজকের দিন এইসব আনন্দ উপভোগ করার জন্য আর পূজোর অপেক্ষা করার দরকার পরে না। মন হলেই ঘুরতে যাওয়া যায় বাইরে। আর খাবার দাবারের জন্য তো হাতের কাছে restaurant আছেই। তাই এইগুলো এখন একঘেয়ে হয়ে গেছে, আর এতো আনন্দ দেয় না।

কাশফুল নিয়েও বাঙালির আবেগ শেষ হয়ে যেত, যদি কাশফুল সারাবছর ফুটতো।

তারমানে কী এটাই দাঁড়াচ্ছে যে আমাদের জীবন থেকে আনন্দ আস্তে আস্তে করে মুছে যাচ্ছে, আমরা আনন্দ করতে ভুলে যাচ্ছি?

না! তা একদমই নয়! বরং বলা যায়, আনন্দ দেওয়ার বিষয় গুলো এখন অনেক বেশি সহজলভ্য। শুধু সেটা অনুভব করার জন্য, আমাদের আনন্দদায়ক সেই সমস্ত বিষয় গুলিকে‌, নতুন ভাবে উপস্থাপন করতে হবে।

এইবার এই বিষয় আপনাদের কী মতামত সেটা জানার আশায় রইলাম।

সকলকে শুভ বিজয়ার অনেক অনেক শুভেচ্ছা। ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন 😊